শক্তিশালী মার্কেট গুলি আশান্তিতে রয়েছে

Posted on
Crude Oil

গতসপ্তাহে একটি অপ্রত্যাশিত ঘটনা শেষ হল যা বর্তমানে তেল আউটপুট হ্রাসের জন্য বাতিল হওয়ার কোন সম্ভাবনা ছিল না।রবিবার,সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে পুরাতন উত্তেজনা আবার উত্তপ্ত হয়েছিল,তেল আউটপুট চুক্তি বন্ধন টির ফলাফল উভয় OPEC দ্বারা পরিচালিত(এটা ১৫ বছরের মধ্যে এই প্রথম)এবং নন-OPEC সদস্যের মধ্য(পেট্রোলিয়াম রপ্তানিকারক দেশসমূহের সংস্থা)।এটি নিঃসন্দেহে অশোধিত মূল্য যা নতুনভাবে পতনের দিকে রয়েছে।

কাতারের রাজধানী দোহা শহরে গতকাল সকালে একটা গুরুত্বপূর্ণ মীটিং আয়োজন করেছিল যেখানে দ্রুত আউটপুট চুক্তি সীল টি উল্লেখ ছিল।রাশিয়া সহ ১৮ OPEC এবং NON-OPEC প্রযোজকরা আগামী ৬ মাস তেল আউটপুট মজুদ করণের জন্য হতে পারে যা অক্টোবার ২০১৬ পর্যন্ত থাকবে।সমাবেশ শেষ না হওয়া পর্যন্ত ইরান কোম্পানি গুলি সৌদি আরবের চাহিদা মেনে নিবেনা এবং সব OPEC দেশগুলোর উচিত এই ব্যবস্থা উপর একমত হওয়া,অভ্যন্তরীণ OPEC উৎস হিসাবে।রিয়াদ বিতর্কের আগে আলোচনায় উল্লেখ করেন যে জানুয়ারী মাসে তেহরান আউটপুট মজুদ করণ প্রত্যাখান জন্য অব্যাহত ছিল যদি ইরান উৎক্ষিপ্ত নিষেধাজ্ঞা প্রস্তাব টি করে।গত মাসে আউটপুট স্থিতিশীলতার প্রচারের জন্য তেল মন্ত্রী কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানি সাথে সাক্ষাত করেন দোহাতে।প্রধান তেল শিল্প চিত্রে বলেন যে ইরান এখন খসড়া চুক্তির জন্য  চ্যালেঞ্জ ছুরে দিতে পারে সেখানে সৌদি আরব মোটামুটি আগ্রহ দেখাতে পারে এবং রাশিয়া যেন বিপর্যস্ত না হতে পারে।

এই চুক্তি খুব শীঘ্রই যদি অভিহিত না হয় তাহলে শেয়ার মার্কেট জন্য তীব্র গতিতে যুদ্ধ হতে পারে অন্যদিকে তেলের দাম যদি ড্রাইভিং থেকে নিম্নবর্তীতে থাকে।চুক্তি অভাবের জন্য সৌদি আরব ইরানের মত অতীতের দেশ হয়ে যাবে এবং মূল্য নিম্নবর্তীতে পরিবর্তন করে কোর উৎপাদন উত্তর আমেরিকা আঘাত করতে পারে।একটি চক্রান্তমূলক দৃষ্টিকোণ হয়তো সৌদিরা খুঁজছেন।

সৌদি আরব যখন ইরান সাইন আউটপুট মজুদ চুক্তি টি কঠিন ভাবে প্রত্যাখ্যান করেছিল বিশেষত যখন ডেপুটি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মাদ বিন সালমান ব্লুমবার্গ ঘোষণা করেন যে তার রাজত্ব উৎপাদন ঊর্ধ্বমুখীতে থাকতে পারে এবং এটি শুধুমাত্র ইরান আউটপুট মজুদ করণ জন্য সম্মতিতে থাকতে পারে।অন্যদিকে ইরানের তেল মন্ত্রী বিজন Zanganeh বিবৃত যে OPEC এবং NON-OPEC সদস্যের কাছাকাছি আশা উচিত এবং মার্কেট থেকে তেলের উপর ইরানের রিটার্ন গ্রহন করা উচিত,এই বলে যে দেশ তার আউটপুট থেকে মজুদ করতে পারবেনা এবং নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার জন্য এখান থেকে কোন লাভ হবে না।

ইন্টারন্যাশনাল এনার্জি এজেন্সির বৃহস্পতিবার বলেন যে,যদিও এই আউটপুট থেকে তেল উৎপাদন মজুদ করণের জন্য একটি বড় পদক্ষেপ হিসাবে প্রদর্শিত হয় তাহলে বিশ্বব্যাপী মূল্য ২০১৭ পর্যন্ত সীমিত পর্যায় থাকবে এবং অসম্ভাব্য ভাবে এটি প্রভাব পরতে পারে।

 

(Visited 23 times, 2 visits today)