মার্কেটের ধরন বোঝে ট্রেড করার উপায়

Aug 10, 2:22 pm
Market charts

জেনে নিন

আমাদের ‘moving average & Bollinger Bandsওয়েবিনার এর মদ্ধ্যে আমরা আলচনা করেছিলাম যে কিভাবে এটা আমাদের উপকার করতে পারে এবং কিভাবে আমরা এর থেকে তত্থ্য নিয়ে কাজ করতে পারি যা কি না ট্রেডিং এর ক্ষেত্রে অনেক উপকারে আসবে। কোনো মার্কেট ই permanently তার ট্রেন্ড একই ভাবে ধরে রাখতে পারেনা তার কারন হচ্ছে প্রাইস একশন সবসমইয় উঠানামা করে। আর এয় পরিস্থিতিটা যে ট্রেডার একবার বুঝতে পারবে সে সফল ভাবে ট্রেড করতে পারবে।

বিভিন্ন প্রকার মার্কেট

যদিও Dr. Van Thrap এর মতে সব মিলিয়ে প্রায় ২৫ ধরনের মার্কেট আছে, কিন্তু আমরা এর মধ্যে বিশেষ কিছু মার্কেট সবমন্ধে আলোচনা করব/

বুল normal

বুল নরমাল হলো এমন একটি মার্কেট যেখানে মার্কেট খুব ধীরে ধীরে উপরের দিকে উঠতে থাকে তাই  একে STAIRCASE বলা হয় যেখানে আমরা হাইয়ার হাইস, হাইয়ার লউস, আবার হাইয়ার হাইস দেখতে পাই। এই মার্কেট কন্ডিশন এ ছোট ছোট retracement দেখা যায়।

বুল volatile

বুল ভোলাটাইল হচ্ছে এমন একটি মার্কেট যা কিনা খুবি রেপিডলি উপরের দিকে উঠে এবং স্বল্প Retracement হয়ে থাকে।

 বিয়ার normal

বিয়ার নরমাল হলো এমন একটি মার্কেট যেখানে মার্কেট খুব ধীরে ধীরে নিচের দিকে নামতে থাকে তাই  একে DOWN the STAIR বলা হয় যেখানে আমরা লোয়ার লউস, লোয়ার হাইস, আবার লোয়ার লউস দেখতে পাই। এই মার্কেট কন্ডিশন এ ছোট ছোট retracement দেখা যায়।

বিয়ার volatile

বিয়ার ভোলাটাইল হচ্ছে এমন একটি মার্কেট যা কিনা খুবি রেপিডলি নিচের দিকে নামতে থাকে এবং স্বল্প Retracement হয়ে থাকে।

সাইডওয়েস quite

সাইডোওয়েস quite

এই মার্কেট কন্ডিশন এ মার্কেট একটি রেঞ্জ এর ভেতর থাকে যা কিনা খুবি কম ভলিউম এবং অনির্দিষ্ট অবস্থায় অবস্থান করতে থাকে যাকে কিনা হালকা বিয়ারিশ এবং বুলিশ ড্রিফট হিসেবে দেখা যায়।

সাইডওয়েস volatile

এই মার্কেট কন্ডিশন এ মার্কেট একটি রেঞ্জ এর ভেতর থাকে যা কিনা  অনেক বেশি ভলিউম এবং অনির্দিষ্ট অবস্থায় অবস্থান করতে থাকে যাকে  কিনা হালকা বিয়ারিশ এবং বুলিশ ড্রিফট হিসেবে দেখা যায়।

markettypes1

বিভিন্ন মার্কেট চেনার কিছু কৌশল

যখনই আপনি মার্কেটের চার্ট এর উপরে যথেষ্ট সময় ব্যয় করতে থাকবেন তখনই আপনার মার্কেট সম্বন্ধে ভালো ধারনা হয়ে যাবে যা কিনা আপনাকে মার্কেট কখন, কোথায়, এবং কিভাবে অবস্থান করবে তা সম্বন্ধেও খুব ভালো একটা ধারনা দিবে।

markettypes2

উপরের একই চার্ট থেকে আমরা দেখতে পাই যেখানে Bollinger Bands এপ্লাই করা হচ্ছে।যা থেকে আমরা দেখতে পাই যে কিভাবে তা মার্কেটকে রিপ্রেজেন্ট করছে। উপরে আমরা দেখতে পাচ্ছি ৬ টি ভিন্ন মার্কেট যা কিনা বিভিন্ন প্রকার মার্কেট এর অবস্থা রিপ্রেসেন্ট করছে।

আপনার সুবিদারথে মার্কেট এর ভিন্নতা ব্যাবহার করুন

1.Bull Normal

যখন মার্কেট উপরের দিকে যাচ্ছে এবং কিছু retracements দেখাচ্ছে তখন আমরা dips back or breakouts এ buy করি।

bullnormal

2.Bull Volatile

মার্কেটে এন্ট্রি নেয়ার জন্য Bull volatile একটু tricky মার্কেট হতে পারে যেখানে retracements অনেক বেশি অথবা কম হতে পারে। এই কন্ডিশন এ আমরা টাইট stop দিয়ে সিম্পল ব্রেকাউট করতে পারি যা কিনা মমেন্টাম কে ধরে রাখতে সাহায্য করে।

3.Bear Normal

যখন মার্কেট নিচের দিকে যাচ্ছে এবং কিছু retracements দেখাচ্ছে তখন আমরা এর মধ্যে আগামি রেসিস্টেন্স অথবা কাছের সুইং লো এর ব্রেকডাউন পর্যন্ত সেল দেওয়ার সুযোগ খুজি।
bearnormal2

4.Bear Volatile

মার্কেটে এন্ট্রি নেয়ার জন্য Bull volatile একটু tricky মার্কেট হতে পারে যেখানে retracements অনেক বেশি অথবা কম হতে পারে। এই কন্ডিশন এ আমরা টাইট stop দিয়ে সিম্পল ব্রেকাউট করতে পারি যা কিনা মমেন্টাম কে ধরে রাখতে সাহায্য করে।

5.Sideways quite

এটি একটি লউ opportunity market যা কিনা একটি রেঞ্জ এর ভেতর উঠানামা করে থাকে যেখানে ট্রেড হউয়ার সম্ভাবনা খুবই কম থাকে, এমতাবস্থায় ট্রেডারসদের ব্রেকাউট এর অপেক্ষায় থাকা উচিৎ যেখানে তারা ট্রেড করতে পারে। কিন্তু ট্রেডারসদের অবশ্যই fake breakouts এর সম্বন্ধে ধারনা থাকা উচিৎ।
sidewaysquiet

6.Sideways Volatile

এই মার্কেট কন্ডিশন একটি রেঞ্জ এর ভেতর উঠানামা করে কিন্তু তা খুবই বড় আকারে যাতে কিনা ট্রেড করার কোনো প্রকার সম্ভাবনা থাকেনা অথবা ট্রেডারসরা ট্রেড করেনা । এই মার্কেটে retracement টা খুবই বেশি যেখানে ট্রেডারসদের সঠিক সময়ের জন্য অপেক্ষায় থাকতে হয়। এই মার্কেটে কন্ডিশনেও false breakout এর সম্ভাবনা থেকে থাকে।
sidewaysvolatile2

আমাদের পোস্ট যদি আপনাদের ভাল লাগে থাকে তা হলে অনুগ্রহ করে আমাদের page এ লাইক এবং পোস্ট টি শেয়ার করুন.

(Visited 23 times, 1 visits today)